Revolutionary democratic transformation towards socialism

বাংলাদেশ-ভিয়েতনাম সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার হবে -সিপিবি কার্যালয়ে ভিয়েতনামের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশের সাথে ভিয়েতনামের সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার হবে। কারণ দুই দেশ ও তার জনগণের মধ্যে বহু সাদৃশ্য রয়েছে। ভিয়েতনামের স্বাধীনতা সংগ্রামে বাংলাদেশের জনগণের সমর্থন এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে ভিয়েতনামের জনগণের সমর্থন দুই দেশের বন্ধুত্বের এক বিরাট নিদর্শন। দুই দেশের কমিউনিস্ট পার্টির মধ্যেও রয়েছে এক দৃঢ় বন্ধুত্ব। এ সম্পর্ক আদর্শিক এবং দীর্ঘদিনের। আজ ৭ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার সিপিবি কার্যালয়ে পার্টির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এক বিদায়ী সাক্ষাৎকালে ভিয়েতনামের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মান্যবর ট্রান ভ্যান খোয়া একথা বলেন। এসময় তাকে স্বাগত জানান পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। অন্যান্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, আন্তর্জাতিক বিভাগের প্রধান হাসান তারিক চৌধুরী। ভিয়েতনামের মান্যবর রাষ্ট্রদূতকে সিপিবির পক্ষ থেকে বিদায়ী শুভেচ্ছা জানিয়ে সিপিবি সভাপতি বলেন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি এবং ভিয়েতনামের কমিউনিস্ট পার্টির সম্পর্ক এক ঐতিহাসিক সূত্রে গাঁথা। সাম্রাজ্যবাদ এবং উপনিবেশবাদের বিরুদ্ধে, সমাজতন্ত্রের লক্ষ্যে সংগ্রামের মধ্য দিয়ে দুই দেশের জনগণের বন্ধুত্ব এক দৃঢ় ভিত্তি পেয়েছে। এ সম্পর্ক জোরদার করতে সিপিবি সবসময়ই আন্তরিক। দুই দেশের জনগণের এবং পার্টির মধ্যে রাজনৈতিক ও সামাজিক আদান-প্রদান আরও বৃদ্ধি করার মধ্য দিয়ে এ সম্পর্ক আগামী দিনে নিশ্চয়ই এক বিরাট উচ্চতায় পৌঁছাবে। সিপিবি সভাপতি বিদায়ী রাষ্ট্রদূতকে দুই দেশের জনগণ ও পার্টির মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য ধন্যবাদ জানান। সফরকালে সিপিবি এবং ভিয়েতনামের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত পরস্পরের সঙ্গে শুভেচ্ছা স্মারক বিনিময় করেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন

Login to comment..