Revolutionary democratic transformation towards socialism

‘চরম বৈষম্যে মানুষ, এক দেশ দুই অর্থনীতি- এটা ভাঙতে হবে’


বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)র সাধারণ সম্পাদক ও বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেছেন, দেশে চরম বৈষম্যে মানুষ, এক দেশ দুই অর্থনীতি, এটা ভাঙতে হবে। এটার পরিবর্তন করা ছাড়া মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করা যাবে না। মানুষের ভোটাধিকার, দূর্নীতি লুটপাটের অবসান, বৈষম্যের অবসান ঘটিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশকে অগ্রসর করতে নীতিনিষ্ঠ বাম শক্তিকে ক্ষমতায় আসতে হবে। এজন্য বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে যার যার দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণ-আন্দোলন, গণসংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। এর মধ্যদিয়ে জনগণের শক্তি জাগ্রত করে দুর্বৃত্তায়িত রাজনীতিকে পরাস্ত করতে হবে।

তিনি বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির সমালোচনা করে বলেন, সরকারের ভুলনীতি ও দুর্নীতির কারণে উৎপাদন খরচ বেড়েছে বলা হচ্ছে। এ দায় জনগণ নেবে না। তিনি বলেন, কৃষক ফসলের লাভজনক দাম পায় না, তারপরও উৎপাদন অব্যাহত রাখছে। তিনি কৃষকের ফসলের উৎপাদন খরচ কমানো, উৎপাদক সমবায় ও ক্রেতা সমবায় গড়ে তোলা ও রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে আমদানি পণ্যের বাফার স্টক গড়ে তোলা এবং সার্বজনীন রেশন, সারাদেশে ন্যায্যমূল্যের দোকান চালুর দাবি জানান। তিনি ক্ষেতমজুরসহ সবার সারা বছর কাজ ও শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের জন্য পেনশনের দাবি জানান।

তিনি নির্বাচন ব্যবস্থার সংস্কার, জাতীয় সংসদে সংখ্যানুপাতিক ব্যবস্থা প্রবর্তন ও স্থানীয় সরকারকে দক্ষ ও শক্তিশালী করার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, রাজধানীতে বসে অনেকেই বলেন, মানুষ ভালো আছে, তাদেরকে বলি একটু গ্রামে আসেন, শহরতলীতে আসেন, সাধারণ মানুষের চেহারা দেখেন। অপুষ্টি, চিকিৎসাহীন, শিক্ষাহীন মানুষকে যদি ভালো থাকা বলেন তাহলে বলার কিছু

নেই।

তিনি বলেন, ক্ষমতাসীনরা দেশটাকে আজ এমন জায়গায় নিয়ে গেছে, তরুণ প্রজন্ম দেশকে ঘিরে স্বপ্ন দেখছে না । তথ্যই বলছে অধিকাংশ শিক্ষাপ্রাপ্ত তরুণ কাজ না করে অনির্দিষ্ট ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে আছে। দেশ ছেড়ে অন্য দেশে যাওয়ার চিন্তায় বিভোর তারা। 

সমাবেশে রুহিন হোসেন প্রিন্স আরও বলেন, আমরা এই ৫৩ বছরের বাংলাদেশে অনেক কিছুই তো দেখলাম। এখন রাজনীতি দুর্বৃত্তদের হাতে বন্দি। এরাই পালাক্রমে ক্ষমতা দখল করে আছে। এদের হাত থেকে দেশকে মুক্ত করতে হবে। একই সাথে গণতন্ত্রহীনতা, লুটপাটতন্ত্র, সাম্প্রদায়িকতা, সাম্রাজ্যবাদ ও আধিপত্যবাদের বিরুদ্ধেও ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

আজ ৯ মার্চ বিকেল ৩টায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) বারহাট্টা উপজেলা কমিটি আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন রুহিন হোসেন প্রিন্স। সিপিবির বারহাট্টা উপজেলা সভাপতি রমেন্দ্র নারায়ণ সরকারের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সংগঠক ও নেত্রকোণা জেলা কমিটির সভাপতি নলিনী কান্ত সরকার, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক কোহিনূর বেগম, ক্ষেতমজুর সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক অর্ণব সরকার ও সিপিবি উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফখর উদ্দিন। সমাবেশ পরিচালনা করেন উপজেলা কমিটির নেতা আব্দুল জলিল।

সমাবেশের পূর্বে উপজেলা সম্মেলনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন উপজেলা কমিটির সভাপতি রমেন্দ্র নারায়ণ সরকার। উদ্বোধনের পর একটি বর্ণাঢ্য মিছিল উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন

Login to comment..