বাম জোটের সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত আমলা নির্ভর অগণতান্ত্রিক বাজেট প্রত্যাখ্যান ২১ জুন ঢাকায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, জেলায় জেলায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা

Posted: 18 জুন, 2020

বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের উদ্যোগে আজ ১৮ জুন ২০২০ সকাল সাড়ে এগারটায় স্বাস্থ্য খাতের দুর্দশা লাঘবের দাবিতে এবং আমলা নির্ভর অগণতান্ত্রিক বাজেট প্রত্যাখ্যান করে এক সংবাদ সম্মেলন অনলাইন প্লাটফরম জুম এ অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ। সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন বাম জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের শীর্ষ নেতা ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান, সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড শাহ আলম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী কমরেড জুনায়েদ সাকী, বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড আলমগীর হোসেন দুলাল, কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পদক কমরেড মোশরেফা মিশু, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক কমরেড হামিদুল হক। সংবাদ সম্মেলনে অনলাইনে আরো যুক্তছিলেন বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড রাজেকুজ্জামান রতন, সিপিবি’র কমরেড সাজ্জাদ জহির চন্দন, আব্দুল্লাহ আল কাফি রতন, বাসদ (মার্কসবাদী)’র মানস নন্দী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আকবর খান, গণসংহতি আন্দোলনের মনিরুদ্দিন পাপ্পু। সংবাদ সম্মেলন থেকে নিন্মোক্ত ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানানো হয়। (১) জনগণের সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবার অধিকার নিশ্চিত এবং বাজেটে কমপক্ষে ২০% স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ করা, সময়মতো অর্থছাড় ও বাস্তবায়ন করতে হবে। (২) প্রত্যেক জেলা-উপজেলায় করোনা পরীক্ষার ল্যাব স্থাপন করে উপজেলায় ২০০, জেলায় ৫০০ এবং সারাদেশে প্রতিদিন কমপক্ষে ৫০ হাজার করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। (৩) স্বাস্থ্য সামগ্রী ও সুরক্ষা উপকরণ কেনা ও সরবরাহ করার সাথে সড়িত দুর্নীতিবাজদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। (৪) নন করোনা রোগীদের কোন হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে দেয়া যাবে না, কোন বেসরকারি হাসপাতাল রোগী ফিরিয়ে দিলে তাদের শাস্তি দিতে হবে এবং হাসপাতাল রাষ্ট্রকর্তৃক অধিগ্রহণ করতে হবে। (৫) করোনা সংক্রমণ ব্যাধি ফলে সকল নাগরিকের টেস্ট এবং চিকিৎসা রাষ্ট্রীয় খরচে করতে হবে। (৬) করোনাকালে সকল বাণিজ্যিক বেসরকারি হাসপাতাল অধিগ্রহণ করে করোনা চিকিৎসায় ব্যবহার করতে হবে। (৭) চিকিৎসক, নার্স, চিকিৎসা সেবা কর্মী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, সংবাদ কর্মীসহ সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। (৮) করোনাকালে দায়িত্ব পালনকারীদের ঝুঁকিভাতা, বীমা ও সরকারি প্রণোদনার ব্যবস্থা করতে হবে। (৯) করোনাকালে কোন কারখানার শ্রমিক ছাঁটাই করা চলবে না, কোন মালিক শ্রমিক ছাঁটাই করলে ঐ কারখানা রাষ্ট্রীয়ভাবে অধিগ্রহণ করতে হবে। ছাঁটাইকৃত শ্রমিকদের পুনর্বাসন করতে হবে। (১০) করোনায় কর্মহীন-রোজগারহীনদের খাদ্য ও নগদ অর্থসহায়তা দিতে হবে। (১১) কৃষি, শিক্ষা, সামাজিক সুরক্ষা ও কর্মসংস্থান খাতে বাজেট বরাদ্দ বাড়াও এবং সামরিক, জনপ্রশাসনসহ অনুৎপাদনশীলখাতে বাজেট বরাদ্দ কমাতে হবে। সংবাদ সম্মেলন থেকে উক্ত ১১ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে বাম গণতান্ত্রিক জোটের উদ্যোগে আগামী ২১ জুন ২০২০ রবিবার সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। ঐ দিন কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকায় সকাল এগারটায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ শেষে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সামনে এবং জেলায় জেলায় সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হবে। জনস্বার্থে উক্ত দাবি আদায়ে ঘোষিত কর্মসূচি সফল করতে সকল বাম প্রগতিশীল দেশপ্রেমিক নাগরিকদের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের আহ্বান জানানো হয়।