সিপিবির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কমরেড জাফরকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় মৌলভীবাজারে শেষ বিদায়

Posted: 01 জুন, 2019

### সারাদেশে সিপিবির শোক দিবস পালিত বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কমরেড সৈয়দ আবু জাফর আহমেদকে আজ ১ জুন শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় মৌলভীবাজারে শেষ বিদায় জানানো হয়। আজ সকাল ৯টায় প্রয়াতের মরদেহ হিমাগার থেকে শমসেরনগর সড়কস্থ প্রয়াতের বাসভবনে নেয়া হয়। এরপর সকাল ১০টায় সিপিবির মৌলভীবাজার জেলা কমিটির কার্যালয়ে নেয়া হয়। সেখানে প্রয়াত কমরেড জাফরের মরদেহ কাস্তে-হাতুড়ি খচিত লাল পতাকা দিয়ে আচ্ছাদিত করা হয়। পার্টির নেতা-কর্মীদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর পার্টির ভলান্টিয়াররা তাঁকে ‘গার্ড অব অনার’ ও ‘রেড স্যালুট’ জানায়। মৌলভীবাজার থেকে প্রকাশিত ‘দৈনিক মনুবার্তা’ পত্রিকার সম্পাদক কমরেড জাফরের মরদেহ সিপিবি অফিস থেকে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবে নেয়া হয়। সেখানে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল হামিদ মাহবুব ও সাধারণ সম্পাদক সালেহ এলাহী কুটির নেতৃত্বে সাংবাদিকেরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য প্রয়াতের মরদেহ সকাল ১১টায় মৌলভীবাজার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেয়া হয়। সেখানে মুক্তিযোদ্ধা জাফরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ‘গার্ড অব অনার’ জানানো হয়। এরপর বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। সাধারণ মানুষও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা মনজুরুল আহসান খান, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, সহ-সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক আহসান হাবিব লাবলু, কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, কোষাধ্যক্ষ মাহাবুবুল আলম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন সুমন, মো. কিবরিয়া। এছাড়া বিভিন্ন গণসংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শহীদ মিনারে কমরেড জাফরের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা মনজুরুল আহসান খান, সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, সাবেক গণপরিষদ সদস্য আজিজুর রহমান, সিপিবির মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সভাপতি মকবুল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক নিলিমেষ ঘোষ বলু, প্রয়াতের বড়ভাই সৈয়দ আবু বকর আহমেদ, বাসদ নেতা ময়নুর রহমান মগনু, স্থানীয় সাংসদ নেসার আহমেদ, আওয়ামী লীগ নেতা মেজবাউর রহমান, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান, ন্যাপ নেতা নীহারেন্দু হোম চৌধুরী, গণতন্ত্রী পার্টির নেতা ডা. গণেশ চন্দ্র দাশ, জাসদ নেতা আব্দুল হক, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমাণ্ডার জামালউদ্দিন, গণফোরাম নেতা শান্তিপদ, সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা আব্দুল মঈন প্রমুখ। ‘কমিউনিস্ট ইন্টারন্যাশনাল’ গেয়ে কমরেড জাফরকে শহীদ মিনার থেকে বিদায় জানানো হয়। দুপুর ২টায় হযরত শাহ মোস্তফা ঈদগাহ ময়দানে নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর হযরত শাহ মোস্তফা দরগাহসংলগ্ন কবরস্তানে তাঁকে সমাহিত করা হয়। এদিকে, কমরেড সৈয়দ আবু জাফর আহমেদের মৃত্যুতে সিপিবি আজ ১ জুন সারাদেশে শোকদিবস পালন করে। সিপিবির কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশের সব কার্যালয়ে কালো পতাকা উত্তোলন ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়। কমরেড জাফরের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, শোক র‌্যালি, কালো ব্যাজ ধারণ, শোকসভাসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়। আজ সকাল ১০টায় সিপিবির কেন্দ্রীয় কার্যালয় মুক্তিভবনের সামনে প্রয়াত কমরেড জাফরের প্রতিকৃতিতে পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল হক রুবেল, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কাজী রুহুল আমিন কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এছাড়া সিপিবির ঢাকা কমিটিসহ বিভিন্ন ইউনিট ও বিভিন্ন গণসংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। শ্রদ্ধা নিবেদনকালে অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, কমরেড জাফর ছিলেন এক ব্যতিক্রমী রাজনৈতিক নেতা। মতাদর্শগত বিকৃতি-বিভ্রান্তির বিরুদ্ধে তিনি সবসময় সোচ্চার ও আপসহীন ছিলেন। বিলোপবাদীদের বিরুদ্ধে মতাদর্শগত সংগ্রামে তাঁর ভূমিকা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তাঁর মতো আদর্শবাদী, নিরহংকার, সজ্জন, দৃঢ়চেতা, বিনয়ী, তাত্তি্বক নেতার অনুপস্থিতি আমরা সব সময় উপলব্ধি করব। তাঁর বিপ্লবী স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমাদের লড়াই অব্যাহত থাকবে। উল্লেখ্য, গত ২৮ মে দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে সিপিবির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কমরেড জাফর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন। সর্বশেষ নিউমোনিয়া ও বিরল স্টিভেন্স জনসন সিনড্রমে আক্রান্ত হন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছিল। বিশেষ ডায়ালাইসিসের প্রয়োজনে চিকিৎসকদের পরামর্শে তাঁকে ইউনাইটেড হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে সফলভাবে ডায়ালাইসিসের পর তাঁর অবস্থা উন্নতির দিকে যাচ্ছিল। কিন্তু ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাকে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।