সিপিবি কংগ্রেসের সাংগঠনিক অধিবেশন শুরু, মুখপাত্র নির্বাচিত

Posted: 29 অক্টোবর, 2016

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)-র একাদশ কংগ্রেসের সাংগঠনিক অধিবেশন শুরু হয়েছে। আজ সকাল সাড়ে নয়টায় নির্ধারিত সময়ে গুলিস্তানের কাজী বশির মিলনায়তনে (মহানগর নাট্যমঞ্চ) এ অধিবেশন শুরু হয়। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ৪ বছর পর এবারের কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবার সারাদেশের ৬৮৩ জন প্রতিনিধি কংগ্রেসের প্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছেন, যার মধ্যে ২১৭ জন নারী ও ১৭ জন আদিবাসী। এর বাইরে ১০৮ জনকে পর্যবেক্ষক মনোনীত করা হয়েছে। ৯৯ জন ভেটারেন কমরেডকে জানানো হয়েছে বিশেষ আমন্ত্রণ। দিনের শুরুতেই কংগ্রেসের সভাপতিমন্ডলী নির্বাচিত হয়। এরপর আলোচ্যসূচি, অনুষ্ঠানসূচি ও কার্যপদ্ধতি উত্থাপন ও অনুমোদন করা হয়। পরে একে একে অডিট কমিটি, ক্রেডেনসিয়াল কমিটি ও প্রস্তাব বাছাই কমিটি নির্বাচন করা হয়। এরপর নির্বাচিত হয় কংগ্রেসের স্পোকস্মেন (মুখপাত্র)। এবার তিনজনকে কংগ্রেসের মুখপত্র করা হয়েছে। মুখপাত্রদের আহ্বায়ক হয়েছেন- কমরেড সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ। বাকি দুই সদস্য হলেন- কমরেড হায়দার আকবর খান রনো ও কমরেড মো. শাহ আলম। কংগ্রেস বিষয়ে যাবতীয় সব তথ্য জানানোর জন্য প্রতিবার কংগ্রেসে আনুষ্ঠানিক মুখপাত্র নির্বাচন করা হয়। রীতি অনুযায়ী, এই মুখপাত্ররাই কংগ্রেস সম্বন্ধে সাংবাদিক ও দেশবাসীকে জানানোর এখতিয়ার রাখেন। মুখপাত্র নির্বাচনের পর কেন্দ্রীয় কমিটির রিপোর্ট নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। সারা দেশ থেকে আগত প্রতিনিধি-পর্যবেক্ষকরা এই রিপোর্ট নিয়ে আলোচনা করছেন। কংগ্রেস সম্বন্ধে জানাতে আজ বিকাল ৪টায় কংগ্রেসস্থলের মিডিয়া সেন্টারে বিশেষ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। সাংগঠনিক অধিবেশনের প্রতিদিনই এভাবে সংবাদ সম্মেলন করে কংগ্রেসের অগ্রগতি জানানো হবে। কংগ্রেসের মুখপাত্রগণ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখবেন। এছাড়া আজ বিকেল ৩টায় বিদেশি প্রতিনিধিদের নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘সাম্রাজ্যবাদ, নয়া উদারনীতিবাদ ও ধর্মীয় মৌলবাদ’ বিষয়ক এক আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। সন্ধ্যা ৭.৩০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মহানগর নাট্যমঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলবে।