Revolutionary democratic transformation towards socialism

‘দাম কমাও জান বাঁচাও’ স্লোগানে সিপিবির বিক্ষোভ গণবিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তুলুন

চাল, আলু, পেঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধির প্রতিবাদে ‘দাম কমাও জান বাঁচাও’ স্লোগানে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র বিক্ষোভ-সমাবেশে নেতৃবৃন্দ গণবিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন। দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ২ নভেম্বর বিকেলে ঢাকার পুরানা পল্টন মোড়ে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ-সমাবেশে সিপিবির নেতৃবৃন্দ এ আহ্বান জানান। সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ-সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন সিপিবির সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডা. সাজেদুল হক রুবেল। সমাবেশের আগে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সমাবেশে কমরেড শাহ আলম বলেন, করোনার আঘাতে যখন মানুষের জীবন বিপন্ন, তখন দ্রব্যমূল্যের পাগলা ঘোড়ার ধাক্কায় জনগণ চরমভাবে অসহায় হয়ে পড়েছে। জিনিসপত্রের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়লেও, কর্তৃত্ববাদী সরকার অবৈধ সিন্ডিকেটকে রক্ষা করে চলেছে। সরকার আর সিন্ডিকেটের যোগসাজশে একদিকে উৎপাদক কৃষক প্রতারিত হচ্ছে, অন্যদিকে ভোক্তাদের পকেট কাটা যাচ্ছে। অবৈধ সিন্ডিকেট শুধু বাজার নয়, গণবিরোধী সরকারকেও নিয়ন্ত্রণ করছে। কমরেড শাহ আলম আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের দর্শন থেকে সরে গিয়ে সরকার এখন মুক্তবাজার দর্শনের ভিত্তিতে দেশ পরিচালনা করছে। জনগণের প্রতি অনির্বাচিত সরকারের কোনো দায় নেই। সরকার ব্যস্ত গদি রক্ষা আর লুটপাট নিয়ে। কর্তৃত্ববাদী সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে, ততদিন মানুষের যন্ত্রণা বাড়তেই থাকবে। কর্তৃত্ববাদী সরকারের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। সমাবেশে অন্য বক্তারা বলেন, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতা আওয়ামী দুঃশাসনের আরেকটি নিদর্শন। করোনাকালে সাধারণ মানুষ যখন জীবন বাঁচাতে দিশেহারা, তখন সরকারের ব্যর্থতা মানুষের জীবনকে আরো হুমকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করতে হলে গণবণ্টন ব্যবস্থা চালু করতে হবে। উৎপাদক ও ক্রেতা সমবায় গড়ে তুলতে হবে। তার জন্য বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প সরকার কায়েম করতে হবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন

Login to comment..