Revolutionary democratic transformation towards socialism

সিলেটসহ সারাদেশে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতন ও হত্যা বন্ধ এবং দায়ী পুলিশের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি

বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ ও জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য সিপিবি সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক কমরেড শাহ আলম, বাসদ সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক, বাসদ (মার্কসবাদী)’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী কমরেড জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পদক কমরেড মোশরেফা মিশু, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের সভাপতি কমরেড হামিদুল হক আজ ১৪ অক্টোবর ২০২০ সংবাদপত্রে দেয়া এক যুক্ত বিবৃতিতে সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে থানায় পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনে মৃত্যুর ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের নামে নির্যাতন বন্ধের জোর দাবি জানিয়েছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, সিলেটে অভিযুক্ত রায়হান আহমদকে গ্রেপ্তার করে পরিবারকে টাকা ঘুষ দেয়ার জন্য চাপ দেয় এবং ঘুষ না পেয়ে নির্যাতন করে তাকে হত্যা করা হয়। এটা শুধু সিলেটে নয়, দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের নামে অকথ্যভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হয়। এতে করে অনেকেই মৃত্যু বরণ করে এবং অনেকেই পঙ্গুত্ব বরণ ও মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে যা মানবাধিকার ও গণতান্ত্রিক আইনের শাসনের পরিপন্থি। স্বাধীন দেশে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতন ও হত্যা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। নেতৃবৃন্দ রিমান্ডের রামে পুলিশ হেফাজতে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন বন্ধ, হেফাজতে নির্যাতন বন্ধের আইনের সুষ্ঠু প্রয়োগ এবং দায়ী পুলিশের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানান।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন

Login to comment..