Revolutionary democratic transformation towards socialism

লংমার্চে পুলিশি মদদে সরকার দলীয় সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদ হামলা করে জনতার কণ্ঠরোধ করা যাবে না

ধর্ষণ ও বিচারহীনতা বিরোধী ঢাকা-নোয়াখালী লংমার্চে পুলিশি মদদে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। ১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার সকালে লংমার্চের নেতাকর্মীদের ওপর ফেনী শহর এবং দাগনভূঞায় দফায় দফায় সশস্ত্র হামলা চালায় স্থানীয় সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা। ঘটনাস্থলে উপস্থিত বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন এক বিবৃতিতে বলেন, সরকার মানুষের ভোটাধিকার, বাকস্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক অধিকারসমূহ হরণ করে যে অপশাসন জনতার উপর চাপিয়েছে তার বিরুদ্ধে ক্রমশ তীব্র হওয়া গণরোষ কোনোভাবেই তারা এড়াতে পারবে না। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ৯ দফা দাবিতে গড়ে ওঠা ধর্ষণ ও বিচারহীনতা বিরোধী আন্দোলন দেশের প্রতিটি বিবেকবান মানুষের আন্দোলন। এ আন্দোলন সরকারের সীমাহীন ব্যর্থতাকে যথাযথভাবে স্পষ্ট করতে সক্ষম হয়েছে বিধায় সরকারি মহল শুরু থেকেই আন্দোলনের বিরুদ্ধে অপপ্রচার এবং হামলা-নির্যাতনের পথ অবলম্বন করেছে। ইতোমধ্যে সরকার আন্দোলনের ৯ দফা দাবির প্রতি কর্ণপাত না করে বরং আইনে ফাঁসির বিধান যুক্ত করে মানুষের দৃষ্টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করেছে। তা সত্ত্বেও সকল বাধা মোকাবেলা করে গতকাল শুরু হওয়া লংমার্চ মানুষের দীর্ঘদিনের ক্ষোভ ও সুপ্ত অপমানবোধের তীব্র প্রকাশ ঘটাতে সক্ষম হয়েছে। এই সফল লংমার্চ প- করতে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা আজ সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে। বিবৃতিতে বাম জোট সমন্বয়ক আরও বলেন, হামলা করে গণমানুষের প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর দমন করা যাবে না। বরং এসকল হামলা-নির্যাতনের মধ্য দিয়ে মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম আরও ব্যাপক রূপ লাভ করবে। তিনি দেশের আপামর বিবেকবান সচেতন মানুষকে প্রতিবাদে সামিল হওয়ার আহ্বান জানান। লংমার্চে সরকার দলীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে আজ ১৭ অক্টোবর, বিকেল ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন

Login to comment..