Register or Login
হামলা-নির্যাতন-গ্রেফতার মোকাবেলা করে হরতাল সফল করায় দেশবাসীকে বাম গণতান্ত্রিক জোটের অভিনন্দন ## গ্যাসের বর্ধিত দাম প্রত্যাহারের দাবিতে ১৪ জুলাই জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও
Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

জনস্বার্থ উপেক্ষা করে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে, সিলিন্ডার গ্যাসের দাম কমানোর দাবিতে এবং জনদুর্ভোগের বাজেটের প্রতিবাদে আহূত হরতাল সফল করায় দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতৃবৃন্দ। হরতাল শেষে পুরানা পল্টন মোড়ে আয়োজিত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, গতকাল চাঁদপুর, ময়মনসিংহ, খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশি হামলা, অবরোধ, অবৈধ তল্লাশিকে উপেক্ষা করে দেশবাসীর সমর্থনে সারাদেশে বাম গণতান্ত্রিক জোটের কর্মী-সমর্থকগণ হরতাল সফল করেছে। তারা হরতাল চলাকালে ঢাকা, জয়পুরহাট, নওগাঁ, মানিকগঞ্জে পুলিশি বাধার তীব্র নিন্দা জানান। বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ও ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স

পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় পরিচালনা কমিটির সদস্য মানস নন্দী, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক ও গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির লিয়াকত আলী। সভা পরিচালনা করেন গণসংহতি আন্দোলনের জান্নাতুল মরিয়ম তানিয়া। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার দেশের এলএনজি-এলপিজি গ্যাস ব্যবসায়ীদের মুনাফার জন্য অযৌক্তিকভাবে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করেছে। তাঁরা বলেন, দেশবাসীর উপর্যপুরি অনুরোধ উপেক্ষা করে ৩০ ডিসেম্বরের নৈশকালীন ভোটের অবৈধ সরকার এখন পর্যন্ত গ্যাসের বর্ধিত দাম বজায় রেখেছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার হরণকারী এ সরকারের বিরুদ্ধে জনগণ ক্রোধান্বিত হয়ে আছে। গ্যাসের অযৌক্তিক দাম বৃদ্ধি তা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। তাঁরা সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, জনগণের মনে সঞ্চারিত অগ্নিস্ফূলিঙ্গ দাবানলে পরিণত

হওয়ার আগেই গ্যাসের বর্ধিত দাম প্রত্যাহার করতে হবে। নইলে দাবানলে ছাড়খার হয়ে যাবে মসনদ। তাঁরা বলেন, সরকারে ছত্রচ্ছায়ায় লুটেরাগোষ্ঠী নানাভাবে প্রাণ-প্রকৃতি-পরিবেশকে ধ্বংস করে নিজেদের সম্পদের পাহাড় গড়ছে। তারা ব্যাংক-বীমা-আর্থিক খাত লুট করে সুইস ব্যাংকের নিরাপদ আশ্রয়ে অর্থ পাচার করছে। বড় বড় প্রকল্পের নামে সরকার দলীয় ব্যবসায়ী-আমলা-রাজনীতিকরা দেশের সম্পদ লুট করছে। নেতৃবৃন্দ গণতন্ত্র হরণকারী ও লুটপাটকারীদের কবল থেকে দেশ বাঁচাতে রাজপথের সংগ্রামের সামিল হতে দেশবাসীকে আহ্বান জানান। কর্মসূচি ## আগামী ১৪ জুলাই, রবিবার গ্যাসের বর্ধিত দাম প্রত্যাহারের দাবিতে ঢাকায় জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও এবং একই দাবিতে সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ। ## আগামী ১৯ জুলাই, শুক্রবার ঢাকার বিএমএ মিলনায়তনে বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি সভা থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা দেয়া হবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..

© Copyright Communist Party of Bangladesh 2019. Beta