Register or Login
সংসদের প্রতি সিপিবির আহ্বান ‘নির্বাচনকালীন সরকার’ ও তার ‘রুটিন কাজের’ বিধান রেখে অষ্টাদশ সংশোধনী পাশ করুন
Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড মো. শাহ আলম এক বিবৃতিতে ‘নির্বাচনকালীন সরকার’ ও তার ‘রুটিন কাজের’ বিধান রেখে অষ্টাদশ সংশোধনী পাশ করার জন্য সংসদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘নির্বাচনের সময় নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করা হবে’ এবং ‘সে সরকার শুধু রুটিন কাজ করবে’- ক্ষমতাসীনদের এসব কথা যদি প্রকৃতই তাদের অন্তরের স্বদিচ্ছা প্রসূত হয়, তাহলে তা সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করে নিতে তাদের কোনো আপত্তি থাকার কথা নয়। এক্ষেত্রে এখন যা প্রয়োজন তা হলো এ বিষয়ে ক্ষমতাসীনদের রাজনৈতিক স্বদিচ্ছা। যদি সেই স্বদিচ্ছার অভাব না থাকে তাহলে এ বিষয়ে এখনই ক্ষমতাসীনদেরকে সরকারের বাইরের গণতান্ত্রিক দল ও শক্তির সাথে দ্রুত শলাপরামর্শ শেষ করে ‘নির্বাচনকালীন সরকার গঠন ও তা শুধু রুটিন কাজ করবে’- মর্মে ‘অষ্টাদশ সংবিধান সংশোধন বিল’ প্রস্তুত করে আগামী ২৩ অক্টোবর যে সংসদ অধিবেশন বসছে সে অধিবেশনেই এই সংবিধান সংশোধনী বিল পাশ করার ব্যবস্থা করতে হবে। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, সংবিধান সংশোধনের জন্য সময়ের স্বল্পতার অজুহাত দেখানো গ্রহণযোগ্য নয়। কারণ এরশাদী স্বৈরশাসনের পতনের পর তিনি যার কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন সেই বিচারপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদের নাম সবাই মিলে চূড়ান্ত করতে ১২ ঘণ্টা সময়ও লাগেনি। সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনীও মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে উত্থাপিত, আলোচিত ও অনুমোদিত হয়েছিল। স্বদিচ্ছা থাকলে সংবিধানের অষ্টাদশ সংশোধনীয় স্বল্পদিনের অধিবেশনে পাশ করানো সম্ভব। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, এ ধরনের একটি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হলে তা রাজনীতিতে অস্থিরতা, নৈরাজ্য, সংঘাত দূর করে সমঝোতার ও অচলাবস্থা কাটানোর একটি পথ খুলে দিবে। এই পদক্ষেপ স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠার দিকে দেশকে এগিয়ে নেয়ার পথ খুলে দিতে সক্ষম হবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..

© Copyright Communist Party of Bangladesh 2019. Beta