Register or Login
সরকারি কর্মচারী আইন ২০১৮ মন্ত্রিসভায় অনুমোদনে সিপিবি’র ক্ষোভ এ আইন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ইনডেমনিটি প্রদানের শামিল
Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
গত ২০ আগস্ট সরকারি চাকরি আইন ২০১৮-এর খসড়া মন্ত্রিসভার বৈঠকে চূড়ান্ত অনুমোদন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম আজ এক বিবৃতি প্রদান করেছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, খসড়া আইনে ফৌজদারী মামলা ছাড়াও দুর্নীতির মামলায় আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করার আগে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গ্রেপ্তার করতে চাইলে সরকারের অনুমতি নেয়ার যে বিধান সংযুক্ত করা হয়েছে তা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এক ধরনের ‘ইনডেমনিটি’ প্রদান করবে। নেতৃবৃন্দ বলেন, আইনে এ ধারা দুদকের আইনের যে প্রাধান্য তা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেলায় খর্ব করবে। এতে দুর্নীতি বৃদ্ধি পাবে। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি দৃশ্যমান হলেও তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ প্রলম্বিত হবে। নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকারি কর্মচারী আইন ২০১৮ সংবিধানের মৌলিক বিধানসমূহের সাথে সাংঘর্ষিক। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, বিনাভোটের এ সরকার আমলানির্ভর। তাই বৈষম্যমূলক ও সংবিধানের মৌলিক অধিকার পরিপন্থী এ আইন দিয়ে দুর্নীতিগ্রস্থ আমলাদের দায়মুক্তি প্রদান করে তাদের সমর্থন ধরে রাখতে সরকার মরিয়া হয়ে উঠেছে। পুনঃবিবেচনা করে আইনের এ ধারা বাতিলের জন্য নেতৃবৃন্দ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..

© Copyright Communist Party of Bangladesh 2019. Beta