Register or Login
সাম্প্রদায়িকতা প্রতিরোধে তৃণমূল থেকে ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ের ডাক সিপিবি’র আহ্বানে ১৫-৩০ নভেম্বর শুরু হচ্ছে ‘সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী প্রচার ও প্রতিরোধ পক্ষ’
Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
সাম্প্রদায়িক সহিংসতা প্রতিরোধে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) আগামীকাল ১৫ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর দেশব্যাপী ‘সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী প্রচার ও প্রতিরোধ পক্ষ’ পালন করবে। সারাদেশে গ্রামাঞ্চলে কমপক্ষে ১ হাজার হাটসভা, শহরাঞ্চলে পথসভা, সমাবেশের মাধ্যমে এই কর্মসূচি পালিত হবে। আগামীকাল ১৫ নভেম্বর নরসিংদী জেলার বেলাবো উপজেলার নারায়ণপুর হাটে হাটসভায় সিপিবি’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বক্তব্য রাখবেন এবং এ কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন। সিপিবি’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ এক বিবৃতিতে ‘সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী প্রচার ও প্রতিরোধ পক্ষ’ সফল করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। বিবৃতিতে সিপিবি’র নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তি এখন দেশের সামনে বড় বিপদ হয়ে দেখা দিয়েছে। যে স্বপ্ন ও আকাঙ্ক্ষা নিয়ে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম, সেই স্বপ্ন ও আকাঙ্ক্ষা থেকে বাংলাদেশ ক্রমশ দূরে সরে গেছে। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম স্তম্ভ ‘ধর্মনিরপেক্ষতা’কে রাষ্ট্রীয় নীতি থেকে কার্যত সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। গণতন্ত্রহীনতার পরিস্থিতিও গণবিরোধী শক্তিকে বেপরোয়া হয়ে উঠতে সাহায্য করছে। বিএনপি সাম্প্রদায়িক শক্তিকে তার জোটসঙ্গী করেছে। সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে মোকাবেলায় সরকার কার্যকর ভূমিকা পালন করছে না। এসব অপশক্তিকে দমন করার পরিবর্তে সরকার তাদের সাথে আপস করে চলেছে। উপরন্তু সরকারি দলের লোকজন উসকানি দিচ্ছে এবং হামলায় অংশ নিচ্ছে। গোবিন্দগঞ্জে আদিবাসীদের ওপর বর্বর নির্মম হামলা করা হয়েছে। এই হামলা-নিপীড়নের জন্য একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ হয়নি। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তি মোকাবেলায় বিবেকবান মানুষকে সোচ্চার হতে হবে। শুধুমাত্র সরকারের ওপর নির্ভর না করে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ শক্তিতেই সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখে দাঁড়াতে হবে। জনগণকে তৃণমূল থেকে ঐক্যবদ্ধ লড়াই গড়ে তুলতে হবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..

© Copyright Communist Party of Bangladesh 2019. Beta