Revolutionary democratic transformation towards socialism

শ্রদ্ধা, ভালবাসায় বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট জেয়াদ আল মালুমের শেষ বিদায়


সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা, ভালবাসায় বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট জেয়াদ আল মালুমকে শেষ বিদায় জানানো হয়েছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সিনিয়র প্রসিকিউটর, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সাবেক সদস্য, বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতির সাবেক সভাপতি, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক নেতা, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট জেয়াদ আল মালুমকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সম্মানিত প্রধান বিচারপতি ও অন্যান্য বিচারপতিগণ, বিভিন্ন সংগঠনের নেতা কর্মীদের শ্রদ্ধা ভালবাসায় চির বিদায় দিয়েছেন। 

উল্লেখ্য গত মাসাধিকসময় ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন

থাকার পর গতকাল রাত ১১টা ৫০মিনিটে জেয়াদ আল মালুম শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর মৃত্যুর খবরে বিভিন্ন মহলে শোকের ছায়া নেমে আসে।

আজ বেলা ১২ টায় প্রথমে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে অ্যাড. মালুমের মরদেহে সম্মানিত বিচারপতি ও আইনজীবীগণ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এখানেই তাঁর প্রথম জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর পল্টনে সিপিবি কার্যালয়ে নেওয়ার কথা থাকলেও প্রচণ্ড যানজটের কারণে তা সম্ভব হয়নি। পরবর্তীতে হাইকোর্ট চত্বরে দ্বিতীয় জানাযা ও শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। এখানে মাননীয় প্রধান বিচারপতিসহ হাইকোর্টের অন্যান্য বিচারপতিগণ, আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দসহ

সাধারণ আইনজীবীগণ ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের পূর্বে এই বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রতি রাষ্ট্রীয় গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এসময় ঢাকা জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়।
এরপর বেলা আড়াইটায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে চত্বরে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য জেয়াদ আল মালুমের মরদেহ নিয়ে আসা হয়। এখানে কমরেড মালুমের মরদেহ পার্টির কাস্তে-হাতুড়ি খচিত লাল পতাকা দিয়ে দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়।

শহীদ মিনার চত্বরে কমরেড জেয়াদ আল মালুমের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা

জানান বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বাম গণতান্ত্রিক জোট, বাসদ, জাসদ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, ঐক্য ন্যাপ, ন্যাপ-কমিউনিস্ট পার্টি-ছাত্র ইউনিয়নের বিশেষ গেরিলা বাহিনীর সদস্যবৃন্দ, ক্ষেতমজুর সমিতি, কৃষক সমিতি, যুব ইউনিয়ন, ছাত্র ইউনিয়ন, উদীচি, মহিলা পরিষদ, মুক্তির পতাকা, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদ, গণজাগরণ মঞ্চসহ অর্ধশতাধিক সংগঠনের নেতাকর্মী ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

এসময় সিপিবি সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, কমরেড জেয়াদ আল মালুম আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত করে দেশ ও জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের ধারায় ফিরিয়ে নেওয়ার কাজকে অগ্রসর করে গেছেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সকল মানুষ তাঁর অবদান শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ রাখবে। এসময় সিপিবি সাধারণ সম্পাদক কমরেড শাহ আলমসহ সিপিবি’র কেন্দ্রীয়, ঢাকা কমিটি ও বিভিন্ন থানার নেতৃবৃন্দ, অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন গণসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। শ্রদ্ধাঞ্জলি অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সিপিবি’র সম্পাদক কমরেড রুহিন হোসেন প্রিন্স।

এরপর মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে জেয়াদ আল মালুমকে দাফন করা হয়।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন

Login to comment..